যখন হিন্দু সন্ত্রাসীরা আত্মঘাতী হামলা করে তখন কেন তাদেরকে হিন্দু সন্ত্রাসী বলা হয় না। প্রেসিডেন্ট ইমরান খান - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Friday, 27 September 2019

যখন হিন্দু সন্ত্রাসীরা আত্মঘাতী হামলা করে তখন কেন তাদেরকে হিন্দু সন্ত্রাসী বলা হয় না। প্রেসিডেন্ট ইমরান খান

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে ইসলাম জলবায়ু পরিবর্তন সহ আরো বিভিন্ন বিষয় ভাষন দেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেট তারকা প্রেসিডেন্ট ইমরান খান। তিনি তার বক্তৃতায় ইসলামফোবিয়া সম্পর্কে বলেন। নাইন ইলেভেনের পর থেকে বিশ্বে ইসলামফোবিয়া ছড়িয়ে পড়ে। এর জন্য দায়ী মিডিয়া এবং পশ্চিমা বিশ্বের কিছু রাষ্ট্রপ্রধানগন। যারা কথায় কথায় ইসলামিক টেরোরিজম বলে বিভিন্ন সভা সমাবেশে বক্তব্য দিয়ে ইসলামকে একটি সন্ত্রাসী ধর্ম হিসাবে প্রচার করে।

কিন্তু তারা ভুলে যায় নাইন ইলেভেনের আগে শ্রীলঙ্কায় হাজার হাজার মানুষকে হিন্দু আত্মঘাতী  জঙ্গিগোষ্ঠী হত্যা করে। কিন্তু তখন তো বলা হয় নাই এরা হিন্দু টেরোরিস্ট হিন্দু জঙ্গিবাদী। এছাড়া বিভিন্ন সময় অন্যান্য জাতিগোষ্ঠীর সন্ত্রাসীরা হাজার হাজার লক্ষ লক্ষ নিরীহ মানুষকে হত্যা করে কিন্তু কখনো তাদেরকে কোন ধর্মীয় সন্ত্রাসী বা জঙ্গী বলে প্রচার করা হয়নি। কিন্তু কেন শুধুমাত্র মুসলমানদেরকে সন্ত্রাসী বা জঙ্গী বলে প্রচার করা হয়। এইজন্য দায়ী শুধু অন্য ধর্মের লোক জন নয় মুসলিম রাষ্ট্রপ্রধানগন এর দায় এড়াতে পারবেনা যদি মুসলিম দেশের রাষ্ট্রপ্রধান গন শক্তভাবে ইসলামফোবিয়া এর বিরুদ্ধে অবস্থান নিতেন তাহলে আজ এই অবস্থা সৃষ্টি হতো না বলে ইমরান খান মন্তব্য করেন।

জনাব খান আরও বলেন নাইন ইলেভেনের পরে ইসলামফোবিয়া ভয়ঙ্কর ভাবে ছড়িয়ে পড়ে সারা বিশ্বে যার বলি সাধারণ মুসলিম নরনারী। আর তখন থেকে বিভিন্ন পশ্চিমা দেশে হিজাব নিষিদ্ধ করে আইন পাস করা হয়।
ইমরান খান জাতিসংঘের অধিবেশনে আরো বলেন ইসলামে কোন মৌলবাদী ইসলাম সন্ত্রাস ইসলাম বলে কিছু নেই। ইসলাম হচ্ছে আমাদের নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম যা আমাদেরকে শিখিয়েছেন সেটাই হচ্ছে ইসলাম সেখানে কোন সন্ত্রাসী জঙ্গিবাদের স্থান নেই।
তিনি বলেন, পশ্চিমাদের অনেকে ইচ্ছাকৃতভাবে মুসলমানদের কষ্ট দেয়ার জন্য বিদ্বেষমূলক কথা-বার্তা বলে থাকে। তাদের বুঝতে হবে যে মুসলমানরা তাদের নবী হজরত মুহাম্মাদ  সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে কতটা ভালবাসে।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, যখন ইসলামের অবমাননার বিরুদ্ধে আমরা প্রতিবাদ জানাই, তখন আমাদের মৌলবাদী বলা হয়।
তিনি আরো বলেন, ইসলামই প্রথম গোলামদের ন্যায্য অধিকার দিয়েছে এবং সংখ্যালঘুদের সমান অধিকার দিয়েছে।

No comments:

Post a Comment

Home