লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। চিকিৎসক ও জনবল সংকটে ব্যাহত হচ্ছে চিকিৎসা সেবা - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Saturday, 7 September 2019

লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। চিকিৎসক ও জনবল সংকটে ব্যাহত হচ্ছে চিকিৎসা সেবা

কুমিল্লার লাকসাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জনবল সংকটে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হচ্ছে, চিকিৎসক ও জনবলের অভাবে হাসপাতালে অপারেশন থিয়েটার চালু করা যাচ্ছেনা। প্রসবজনিত সমস্যাসহ অপারেশনের রোগীদের বাধ্য হয়ে বেসরকারি হাসপাতালে যেতে হয়। এলাকাবাসী জানান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ২০০৯ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে হাসপাতালটি ৫০ শয্যায় উন্নীত করা হয়। জনবল সহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি না করায় দেখা দিয়েছে নানা সমস্যা। যারা কর্মরত আছেন তারা নিয়মিত কর্মস্থলে থাকছেন না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে‌। আর এম ও ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন, সূত্র জানায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকসহ চিকিৎসা কর্মকর্তাদের মধ্যে ২৬ টি পদের মধ্যে ১৬ টি শূন্য। মেডিসিন, শিশু, নাক কান গলা, চর্ম ও যৌন রোগ, অর্থোপেডিক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক না থাকায় সাধারণ মানুষ চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

ডেন্টাল সার্জনের পদ শূন্য ১২ জন মেডিকেল অফিসার সহকারী সার্জন এর স্থলে সার্জন অফিশিয়ালি কর্মরত থাকলেও একজন দীর্ঘদিন ধরে অনুপস্থিত রয়েছেন। এদিকে প্রধান সহকারীসহ কর্মচারীদের ৩০ টি পদের বিপরীতে কর্মরত আছেন মাত্র তিনজন। ফলে হাসপাতালে দৈনন্দিন কাজ ঠিকমতো হচ্ছে না। অন্যদিকে লাকসামে তিনটি উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রের প্রতিটিতে একজন চিকিৎসা কর্মকর্তা এবং একজন সহকারি চিকিৎসা কর্মকর্তা একজন ফার্মাসিস্ট ও একজন এম এল এস এস এর পদ রয়েছে, কিন্তু চিকিৎসা কর্মকর্তাসহ জনবলসঙ্কটে সেগুলোতেও কাঙ্ক্ষিত সেবা মিলছে না। লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার মোহাম্মদ আলী বলেন, চিকিৎসক এবং অন্যান্য সমস্যা থাকলেও আমরা রোগীদের সেবা দেওয়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছি। সমস্যার কথা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে, আশাকরি অতি শিগগির শূন্যপদে নিয়োগ দেওয়া হবে। কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডাক্তার মজিবুর রহমান বলেন, জেলার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলো চিকিৎসক সংকট রয়েছে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। আগামী ২ মাসের মধ্যে চিকিৎসক সংকট কাটবে।

No comments:

Post a Comment

Home