৪০ কাশ্মীরি যুবককে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। অন্যরা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Friday, 6 September 2019

৪০ কাশ্মীরি যুবককে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। অন্যরা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে

ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে স্বায়ত্তশাসন পুরোপুরি করে নেওয়ার পর থেকেই সংকটে রয়েছে কাশ্মীরের বাসিন্দারা। সম্প্রতি নামমাত্র জরুরি অবস্থা তুলে নেওয়া হলেও ভূস্বর্গে অবস্থান করছে ৮ লাখের বেশি ভারতীয় সেনা।

ভারতীয় সেনারা গোটা অঞ্চলের বাসিন্দাদের ওপর ভয়াবহ নির্যাতন চালাচ্ছে বলে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মাধ্যম খবর বেরিয়েছে। এবার তেমনই এক সেনা নির্যাতনের খবর এসেছে, বুধবার দক্ষিণ কাশ্মীরের সফিয়ান জেলার গ্রামবাসীর উপর নিপীড়ন চালিয়েছে সেনাবাহিনী।

শোপিয়ানের পারিগাম ও ওমপোরা গ্রামের বাসিন্দারা জানায়, ওই গ্রামগুলির কাছে গাছের গুঁড়ি ফেলে রাস্তা অবরোধ করেছিলেন তারা। বুধবার রাস্তা সাফ গাড়ি নিয়ে গ্রামে ঢুকে সেনারা। সে রাতেই ওই গ্রাম দুটি প্রবেশ করে তল্লাসীর নামে নিরীহ গ্রামবাসীদের ওপর জুলুম চালায় ভারতীয় জওয়ানরা। তারা গ্রামের ঘরবাড়ি তছনছ করে, গাড়িও ভাঙচুর চালায়। তার পরে শুরু হয় গ্রামবাসীদের ওপর শারীরিক নির্যাতন। তাদের হাত থেকে রেহাই পায়নি নারীরাও।

নারীসহ ৪০ জনের মতো বাসিন্দাকে নিষ্ঠুরভাবে মারধোর করে নির্মমভাবে আহত করেন সেনারা, মারধরের পর দুই গ্রামের ২০ জন যুবককে তুলে নিয়ে যায় সেনাবাহিনী, তাদের কোথায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ওই এলাকাটি কাঁটাতার দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন সেনারা।
কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করার পর গত একমাসে ভূ-স্বর্গে হাজার হাজার মানুষকে আটক করা হয়েছে। ভারত সরকার অবশ্য ৪১০০ জনকে আটকের খবর শিকার করছে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সরকারি সূত্র জানাচ্ছে আটককৃতদের মধ্যে প্রায় এক হাজার মানুষকে উপত্যাকার বাইরে রাখা হয়েছে।
মোবাইল ও ইন্টারনেট বন্ধ থাকায় কাশ্মীরের বাইরে থাকা পরিবার-পরিজনের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না পরিবারগুলো। এমনকি ঈদের শুভেচ্ছা জানাতে পারেননি অনেকে। মোহাম্মদ ইউসুফ খানের ছেলে ইকবাল জার্মানিতে ডক্টরেট করছেন, ইউসুফ বলেন প্রায় একমাস কথা হয়নি ও কেমন আছে জানিনা।

No comments:

Post a Comment

Home