অবৈধ সংসদ,পূর্বাচল প্লট,নৈতিকতা ও একজন আশরাফ উদ্দীন নিজাম। শাহাদাত হোসেন সেলিম - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Sunday, 25 August 2019

অবৈধ সংসদ,পূর্বাচল প্লট,নৈতিকতা ও একজন আশরাফ উদ্দীন নিজাম। শাহাদাত হোসেন সেলিম

আশরাফ উদ্দিন নিজাম একজন প্রচারবিমুখ সাবেক সংসদ সদস্য হাজার ১৯৯৮ সালে বিপরীত রাজনৈতিক দল ত্যাগ করে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপিতে যোগদান করেন। ২০০১ সালে সংসদ নির্বাচনে লক্ষ্মীপুর ৪ রামগতি আসনে বিএনপি'র মনোনয়ন নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবদুর রব চৌধুরী ও সাবেক আওয়ামী মন্ত্রী জাসদ সভাপতি আসম আবদুর রব কে পরাজিত করে রাজনৈতিক অঙ্গনে বেশ চমক সৃষ্টি করেন।

১/১১ এর ভয়াবহ সংকটের প্রথম দিকে যখন দলে দলে সংসদ সদস্যগণ আব্দুল মান্নান ভূঁইয়ার চরণতলে সমর্পিত হয় বিএনপিকে তুলনা করছে, মিডিয়াকর্মীরা বিএনপি'র পক্ষে কথা বলার মত কাউকে খুঁজে পাচ্ছে না। তখন আশরাফ উদ্দিন নিজাম সকল প্রতিকূলতাকে উপেক্ষা করে দৃপ্তকণ্ঠে মিডিয়ার সামনে দাঁড়িয়ে বেগম খালেদা জিয়া এবং বিএনপির পক্ষে কথা বলে দেশ-বিদেশে কোটি কোটি বিএনপিকর্মীদের মন জয় করেন।

২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে বড় ব্যবধানে জয়লাভ করে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। বিএনপির থেকে সংসদীয় কমিটির সভাপতির পদে দুইজন কে মনোনয়ন দেওয়ার সুযোগ হয়, অনেক সিনিয়র সাংসদকে হতচকিত করে বেগম খালেদা জিয়া আশরাফ উদ্দিন নিজাম কে প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদায় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির সভাপতি হিসেবে মনোনীত করেন।

সেসময়ে গভীর সমুদ্রে মাছ ধরার জন্য পঁয়ত্রিশটি অতি-আধুনিক ফিশিং ট্রলার বরাদ্দ দেওয়া হয়। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ মহল সে তালিকা অনুমোদন করে, মন্ত্রী আব্দুল লতিফ বিশ্বাস সংসদীয় কমিটির সভাপতি হিসেবে আশরাফ উদ্দিন নিজাম কে দুইটি ফিশিং ট্রলারের বরাদ্দ দেওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। নৈতিকতার মানদন্ডে গ্রহণযোগ্য না হবার কারণে আশরাফ উদ্দিন নিজাম সে বরাদ্দ গ্রহণ করেন নাই। যার তৎকালীন মূল্য পাঁচ কোটি টাকা।

No comments:

Post a Comment

Home