রামগঞ্জে আলোচিত ফাটল ব্রীজের কাজ শেষ না করেই বিল উত্তোলন! - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Monday, 1 July 2019

রামগঞ্জে আলোচিত ফাটল ব্রীজের কাজ শেষ না করেই বিল উত্তোলন!

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার অতিরিক্ত দায়িত্ব প্রাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মোশারফ হোসেনকে ম্যানেজ করে আলোচিত ফাটল ব্রিজের বিল গোপনে উত্তোলন করা হয়।
রামগঞ্জ উপজেলার লামচর ইউনিয়ন এর দাসপাড়া কুইআর বাড়ির সামনে ওয়াবদা খালের উপর নির্মাণাধীন সমালোচিত সেই ফাটল বীজের বিন গোপনে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার ও রামগঞ্জ উপজেলার অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রকল্প প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মোশারফ হোসেন লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের একজন ঠিকাদারের শালা সাথে গোপনে যোগসাজশে কয়েক লাখ টাকা ঘুষ নিয়ে বিলটি পাস করে দেয়।
ঘটনাটি জানাজানি হলে বিভিন্ন ঠিকাদারসহ সর্বমহলে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয় টাকা বরাদ্দ হওয়ায়। ব্রীজটি নির্মাণ শেষ না হতেই বিভিন্ন স্থানে ফাটল ধরে। এই নিয়ে ছাব্বিশে জুন বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাঝে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়। উক্ত বিষয় নিয়ে কয়েকজন ঠিকাদার বলেন অতিরিক্ত দায়িত্ব প্রাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মোশারফ হোসেন জাফলং এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মোহাম্মদ সেলিম হোসেন থেকে মোটা অঙ্কের আর্থিক সুবিধা নিয়ে গোপনে বিল পাঠিয়ে দেন।
রামগঞ্জ উপজেলা হিসাব রক্ষণ অফিসের অডিটর মোঃ রুহুল আমিন বলেন মানসম্মতভাবে ব্রীজ নির্মাণ করা হয় মর্মে ব্রিজ নির্মাণের সংশ্লিষ্ট অফিসাররা ছাড়পত্র দিয়েছে। প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র থাকায় বিলটি হিসাবরক্ষকের টেবিলে পাঠালে তিনি ২৪লক্ষ ৩০ হাজার ২২৯ টাকা ছাড় দেন। এ ব্যাপারে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও জাফলং এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মোহাম্মদ সেলিম হোসেনকে পাওয়া যায়নি। উপজেলা ভারপ্রাপ্ত পিআইও মোশারফ হোসেন বলেন জুন ক্লোজিং এর কারণে বিলটি উত্তোলন করে পে অর্ডার করে আমাদের কাছে রাখা হয়েছে কাজ শেষ করার পরে ওই টাকা প্রদান করা হবে।

No comments:

Post a Comment

Home