লক্ষীপুরের রামগঞ্জে ভাতিজার সাথে চাচি পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ! - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Thursday, 20 June 2019

লক্ষীপুরের রামগঞ্জে ভাতিজার সাথে চাচি পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ!

লক্ষীপুরের রামগঞ্জে ভাতিজার হাত ধরে চাচি উধাও! রামগঞ্জ উপজেলার ভোলাকোট ইউনিয়নের দেবনগর গ্রামের আসিম উদ্দিন বেপারী বাড়ির আব্দুল জলিলের স্ত্রী এক সন্তানের জননী রিনা বেগম পার্শ্ববর্তী নয়াবাড়ির মৃত আবুল কাশেমের বড় ছেলে বিল্লাল হোসেনের হাত ধরে পালিয়ে যায়। উক্ত ঘটনায় বাদী হয়ে রামগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন রিনা বেগমের স্বামী মোঃ আব্দুল জলিল।
সূত্রে জানা যায় ১৭ই জুন সোমবার সকাল ১১ টায় আব্দুল জলিলের বাড়ি থেকে নগদ তিন লক্ষ টাকা ও ২ লক্ষ্য টাকা সমমূল্যের স্বর্ণালঙ্কার মোবাইল ফোন দামি কাপড় চোপড় নিয়ে পাশ্ববর্তী বিল্লাল হোসেনের হাত ধরে পালিয়ে যায় গৃহবধূ রিনা বেগম।
পালিয়ে যাওয়া গৃহবধূ রিনা বেগমের স্বামী আব্দুল জলিল বলেন পার্শ্ববর্তী বাড়ির বিল্লাল হোসেন রামগঞ্জ সিটি প্লাজা মনপুরা টেইলার্সের মালিক। জামা কাপড় সেলাই এর সূত্র ধরে বিগত ছয় মাস তার স্ত্রীর সাথে সম্পর্ক করে এবং দৈহিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে বিল্লাল হোসেন। এর জের ধরে তার স্ত্রী রিনা বেগম বিল্লাল হোসেনের সাথে নগদ তিন লক্ষ টাকা এবং ২ লক্ষ টাকার স্বর্ণালঙ্কার মোবাইল ফোন ও জামাকাপড় নিয়ে উধাও হয়ে যায় গত ১৭ তারিখে তার অনুপস্থিতিতে। তিনি আরো বলেন বিল্লাল হোসেন ইতিপূর্বে এই ধরনের কয়েকটি ঘটনা ঘটিয়েছে, আগেও বিল্লাল কয়েকটি পরিবারের গৃহবধু দের কে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটিয়েছেন। তাই তিনি এ ঘটনায় বিচার ও উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।
রিনা বেগমের স্বামী আব্দুল জলিল বলেন বিল্লাল হোসেন টেইলার্স দোকানের আড়ালে জামা কাপড় সেলাইয়ের অজুহাতে গৃহবধূদের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়তেন এবং সময় সুযোগ বুঝে তাদেরকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার কয়েকটি ঘটনা ঘটিয়েছেন।
পালিয়ে যাওয়া গৃহবধূ রিনা বেগম এর মেয়ে বলেন তার মায়ের অবৈধ মেলামেশার সময় দেখে ফেলায় তাকে ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে টুকরো করার ভয় দেখানো হতো এবং তাকে মারধোর করা হতো। তাই তিনি ভয়ে কাউকে কিছু বলতে পারেননি। অভিযুক্ত বিল্লাল হোসেন এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি।
খবরের সূত্র রামগঞ্জ খবর প্রতিদিন থেকে।

No comments:

Post a Comment

Home