কলকাতায় একজন ডাক্তারের উপর হামলা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড়! - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Wednesday, 12 June 2019

কলকাতায় একজন ডাক্তারের উপর হামলা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড়!

একজন জুনিয়র ডাক্তার এর উপর হামলার জেরে ফুঁসে উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ রাজনৈতিক লেখক কবি সাংস্কৃতিক কর্মী সবাই এখন ডাক্তারের পাশে নিন্দা করেছেন সকলে। ঘটনাটি পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার একটি হাসপাতালে এই ঘটনায় হামলাকারীদের কঠিন শাস্তির দাবিতে সোচ্চার কলকাতাবাসী এ ব্যাপারে কবি সমরজিৎ সিনহা বলেন চিকিৎসক আমার কাছে ঈশ্বর, ঈশ্বর এর উপর হামলার তীব্র নিন্দা জানাই।
বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব শ্যামলী চট্টোপাধ্যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখেন চিকিৎসার গাফিলতিতে মৃত্যু এই অভিযোগে সোমবার রাতে এন আর এস হাসপাতালের জরুরি বিভাগে জুনিয়র ডাক্তারদের উপর হামলা এর ফলে একজন ডাক্তারের অবস্থা সংকটজনক আজ সকাল থেকে প্রথমে এন আর এস শুরু হয় কর্মবিরতি তারপর রাজ্যের প্রতিটি সরকারি কলেজে কর্মবিরতি শুরু হয় দাবি নিরাপত্তার গ্যারান্টি।

এতে কি সমস্যার সমাধান হবে অবশ্যই হবে না নিরাপত্তারক্ষী বাড়িয়ে নিরাপত্তার গ্যারান্টি সম্ভব নয় ব্যাপারটা একটু পর্যালোচনা করা যাক, আমরা কেউই মৃত্যুকে স্বাভাবিকভাবে মেনে নিতে পারে না চিকিৎসার গাফিলতিতে মৃত্যু হয় না এ কথা অস্বীকার করছি না কিন্তু অভিযোগ করলেই হবেনা প্রমাণ চাই শুধু সন্দেহের বশে ডাক্তারদের উপর হামলা চালিয়ে দিলাম এটা কখনোই মেনে নেওয়া যায় না তাই যাদের মনে হবে তারা রোগীর চিকিৎসার গাফিলতিতে মৃত্যু হয়েছে তারা ও চিকিৎসা কেন্দ্রের কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি করুন মৃত্যুর ময়না তদন্ত করা হোক এ ক্ষেত্রে সমান ভাবে চিকিৎসকদেরকে সচেষ্ট হতে হবে অন্যথায় এ ঘটনা বারবার ঘটবে।
photo, collected

সব মৃত্যু দুঃখজনক কিন্তু মৃত্যু সত্য বটে একজন বৃদ্ধ মারা গেলেন বলে রীতিমত হুমকি দিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে তাতে 50 জনকে ট্যাগ করে উস্কানি দিয়ে দুই ট্রাকভর্তি দুষ্কৃতী এসে একটা সরকারি হাসপাতালে তাণ্ডব চালায় দুইজন জুনিয়র ডাক্তার কে মেরে ফাটিয়ে দিয়ে যারা এত কিছু করল তাদের নাম মিডিয়ায় নেওয়া হলো না তাদের কজন কে কে এখনও গ্রেপ্তার হয়েছে জানা নেই এটা কি হচ্ছে?

এক পক্ষের হয়তো আনন্দ হচ্ছে কারন তাদের মতে ডাক্তাররা সবাই খুব খারাপ ডাকাত রোগী মারে টাকা খায় সব চোর কিছু জানে না মার শালাদের ডাক্তারদের কিন্তু তারাই আবার গুগল করে বা ওষুধের দোকানে বলে ওষুধ খেয়ে যখন রোগ সারে না উল্টা বাড়ে তখন সে জটিল হয়ে যাওয়া রোগ নিয়ে ডাক্তারের কাছে যান তার পরে বেরিয়ে এসে আবার ডাক্তারদের গালাগাল দেন কিন্তু ডাক্তার ডাক্তার এর নীতি থেকে বিচ্যুত হয়তো ঠিকই কিন্তু তাই বলে সেটাকে তুলে ধরে গ্রুপটা কে গালি গালা করা কতটা যুক্তিযুক্ত।

No comments:

Post a Comment

Home