চীনা গণমাধ্যমে বাগেরহাটের ষাট গম্বুজ মসজিদ - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Tuesday, 11 June 2019

চীনা গণমাধ্যমে বাগেরহাটের ষাট গম্বুজ মসজিদ

photo, collected

মসজিদের শহর হিসেবে বাগেরহাটের আলাদা সুনাম রয়েছে বিশ্ব ঐতিহ্য ষাট গম্বুজ মসজিদ বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম এর এই জেলায় অবস্থিত বাগেরহাটে ৫০ বর্গ কিলোমিটারের মধ্যে রয়েছে ৩৬০ টি মসজিদ মসজিদের শহর হিসেবে প্রতিবেদনে প্রকাশ করেছেন ইংরেজি ভাষার সংবাদ চ্যানেল সিজিটিএন চীনা গণমাধ্যমের শিরোনাম দ্য লস্ট সিটি কমপ্লিট মেমোরিজ অফ বাগেরহাট এর বাংলা করলে দাঁড়ায় স্মৃতিঘেরা হারানো শহর মসজিদের শহর বাগেরহাট।
চিনা গণমাধ্যমটি মনে করিয়ে দিয়েছেন মার্কিন ব্যবসা সংক্রান্ত ম্যাগাজিন ফোর্বস-এর ১৫ টি হারানোর শহরের তালিকায় বাগেরহাট অন্যতম। সেই জন্যেই তারা প্রতিবেদনের শিরোনাম করেছে এরকম এতে উল্লেখ করা হয় ১৪৫৯ সালে খানজাহান এর মৃত্যুর পর বাগেরহাট পরিণত হয় জঙ্গলে শতাব্দি পর এটি আবিষ্কৃত হয়। সি জি টি এন এর নো এশিয়া বেটার এশিয়াকে ভালোভাবে জানুন। এই সিরিজে এবার বাংলাদেশ তথা বাগেরহাট নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করেছে তারা।
photo, collected

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় বাগেরহাটের মসজিদগুলো প্রাচীনকালে বাংলার মুসলিম স্থাপত্যের পরিচয় বহন করে। পঞ্চদশ শতকে ইসলাম ধর্মের প্রচারক খানজাহান শহরটি গড়ে তুলেন এর আগে খলিফাবাদ নামে পরিচিত ছিল এই শহর এখানে মধ্যযুগীয় ইসলামী শহরের সব বৈশিষ্ট্য সংরক্ষিত রয়েছে। প্রতিবেদনে স্বাভাবিক ভাবে গুরুত্ব পেয়েছে ষাট গম্বুজ মসজিদ বাগেরহাট শহর থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার পশ্চিমে খুলনা বাগেরহাট মহাসড়কের পাশে অবস্থিত হযরত খানজাহান এর অমর সৃষ্টি সাড়ে ৬০০ বছরের পুরনো ঐতিহাসিক স্থাপনায় পুরাকৃতি গুলোতে রয়েছে সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্যে নিদর্শন।
photo, collected

ষাট গম্বুজ মসজিদ থেকে মাইলখানেক দূরে অবস্থিত সোনা মসজিদের একটি ছবি প্রকাশ করেছে সি জি টি এন । খান জাহানের মাজার বাগেরহাট এর আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ স্মৃতিস্তম্ভ এটি ভালোভাবে সংরক্ষিত আছে বলে উল্লেখ করা হয় প্রতিবেদনে প্রতিদিন শত শত মানুষ সেখানে গিয়ে তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বলে জানান ১৯৮৫ সালে ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্য তালিকায় স্থান পায় বাগেরহাট।
photo, collected

নো এশিয়া বেটার সিরিজে এশিয়ার ৪৭ টি দেশের সেরা স্থাপত্য ও শিল্পকলা সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বের কথা জানিয়েছেন সিটিএন তাদের প্রতিবেদনের সুবাদে বাগেরহাটে বিদেশি পর্যটক সমাগম হবে বলে আশা করা হচ্ছে। সিজিটিএন বেইজিং ভিত্তিক চায়না সেন্ট্রাল টেলিভিশনের অংশ চায়না গ্লোবাল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক গ্রুপের সংবাদ চ্যানেল এটি।

No comments:

Post a Comment

Home