আওয়ামী লীগের নামে বাজারের নামকরণঃ মিশ্র প্রতিক্রিয়া - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Sunday, 26 May 2019

আওয়ামী লীগের নামে বাজারের নামকরণঃ মিশ্র প্রতিক্রিয়া

টাঙ্গাইলের মধুপুরে আলোকদিয়া ইউনিয়ন উত্তর লাউ খোলা গ্রাম। সেখানে গত এক বছর আগে স্থানীয়দের উদ্যোগে একটি বাজার বসানো হয় আর সেই বাজারের নামকরণ করা হয় খালেক বাজার।
বাজারটি অল্প কয়েকদিনের মধ্যে খুব জনপ্রিয় হয়ে ওঠে কিন্তু হঠাৎ করে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতার হস্তক্ষেপে বাজারে নামকরণ করা হয় আওয়ামী লীগ বাজার ও বঙ্গবন্ধু বাস স্ট্যান্ড।
এরপর থেকে বাজারটি বন্ধ হয়ে যায় এ নিয়ে পৌর ইউনিয়ন জুড়ে শুরু হয়েছে আলোচনা-সমালোচনা। আওয়ামী লীগ বাজার ও বঙ্গবন্ধু বাস স্ট্যান্ড এর সাইনবোর্ডটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে পুরো উপজেলায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। জহিরুল ইসলাম এর আইডিতে এই নিয়ে একটি পোস্ট দিলে না না মন্তব্যের ঝড় উঠে কাজী আসাদুজ্জামান আদর নামে একজন মন্তব্য করেন এটা হতে পারে না নিন্দা জানাই অবিলম্বে এই সাইনবোর্ড নামিয়ে ফেলা হোক হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি কে যত্রতত্র নাম ভাঙ্গিয়ে মেয়েদের সুবিধা আদায় করছে ছিঃ

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় মধুপুরের আলোকদিয়া ইউনিয়ন এর উত্তর লাভ ফুলা গ্রামের বেশিরভাগ মানুষ আনারস চাষ করে। প্রতিদিন সকাল বেলায় এই গ্রামে কাঁচাবাজার বসে গত এক বছর ধরে চলে এ বাজারটি। প্রথমেই বাজার কি বসানোর উদ্যোগ নেন আব্দুল খালেক নামের এক ব্যক্তি। কিছুদিনের মধ্যে বাজার টি জনপ্রিয় হয়ে উঠে সবার কাছে। বাজার টি জনপ্রিয় হয়ে উঠলে আব্দুল খালেক তার নিজের নামে প্রচার করে আব্দুল খালেক বাজার।
কিন্তু হঠাৎ করে কিছুদিন না যেতেই একই গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা শহিদুল ইসলাম ওই বাজারের নাম পরিবর্তন করে আওয়ামী লীগ বাজার ও বঙ্গবন্ধু বাস স্ট্যান্ড রাখেন। নামকরণ এর পর থেকেই বাজারটি বন্ধ হয়ে যায় এরপর থেকে প্রতিদিন বাজার না বসলেও নামকরণের সাইনবোর্ড টানিয়ে রাখা হয়েছে।
এই বিষয়ে উত্তর লাভ ফুলা গ্রামের বাসিন্দা ফরহাদ হোসেন জানান কয়েকটি গ্রাম নিয়ে এ বাজারটি বসানো হয়েছিল প্রথম অবস্থায় বাজারের নাম ছিল কিন্তু হঠাৎ করে কিছু আওয়ামী লীগ নেতা নাম পরিবর্তন করে আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধু বাস স্ট্যান্ড নামকরণ করেন।
একই গ্রামের জয়নাল জানান প্রতিদিন সকালে কাঁচা বাজার বসতো এখানে কয়েকটি গ্রাম মিলে আমরা এ বাজারটি বসেছি স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা শহিদুল ইসলাম আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধু বাসইসটান নামকরণ এর পর থেকে বাজারটি আমরা বন্ধ করে দিয়েছি।
আলুকদিয়া ইউনিয়ন এর 6 নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান দীর্ঘদিন ধরে তিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতি করেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালন করেন তাই তিনি এই বাজারে আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধু বাসস্টান নামকরণ করেন।
আলোকদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম আজাদ জানান তিনি শুনেছেন ঢাকা থেকে একজন এসে তার নামে বাজারের নামকরণ করেছিল তাই পরিবর্তন করা হয়েছে।
আলুকদিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি দুলাল হোসেন জানান বিষয়টি তিনি শুনেছেন তবে এই ধরনের কোন নাম দিয়ে বাজারের নামকরণ করাটা সমীচীন নয় এতে আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধু সুনাম নষ্ট হচ্ছে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।
খবর দৈনিক নয়া দিগন্ত অনলাইন।

No comments:

Post a Comment

Home