ধানের ভিতরে চাল নাই কৃষকের মাথায় হাত - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Monday, 8 April 2019

ধানের ভিতরে চাল নাই কৃষকের মাথায় হাত


নেত্রকোনা-মোহনগঞ্জ সহ হাওর অঞ্চলের অনেক জায়গায় এবার বোরো ফসলের জমিতে ধানের ভিতর চাল নেই।নেত্রকোনা জেলার সবচেয়ে বড় হাওর ডিঙ্গাপোতা সহ অন্যান্য হাওরেও একি সমস্যা দেখা দিয়েছে এতে কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে।
মোহনগঞ্জে বড় ফসলের আবাদ শেষে যখন ধান পেকে আসছে এবং কৃষকরা ধান ঘরে তোলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন ঠিক এমন সময় এই সমস্যাটি কৃষকের জন্য বিরাট দুঃসংবাদ নিয়ে আসছে। ধানে চাল না থাকায় এবং অধিকাংশ চিটা হওয়ায় আবারো নিঃস্ব হয়ে পথে বসতে হবে বলে আশঙ্কা করছেন হাওর অঞ্চলের কৃষকেরা।
উপজেলার জয়পুর গ্রামের কৃষক মোঃ দুলাল মিয়া জানান গেল বছরে বন্যার ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার আগেই আবারো প্রাকৃতিক দুর্যোগ নেমে এসেছে হাওরের কৃষকদের জীবনে। হুলিয়া ও কচুয়ার হাওরে কৃষকের মুখে হাসি নেই। ধান ক্ষেতে ধান আছে চাল নেই। তিনি আক্ষেপ করে আরো বলেন এ কেমন আল্লাহর গজব ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে এত দিন আশায় ছিলাম ফসল উঠলে ঋণ মুক্ত হতে পারব ধানের চিটার ফলে নতুন করে আবারো সমস্যায় পরতে হল।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল জানান উপজেলায় বোরো আবাদ হয়েছে 6 হাজার পাঁচ শত হেক্টর জমিতে ধানের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ১৭ হাজার মেট্রিকটন কিন্তু কোল্ড ইনজুরির কারণে লক্ষ মাত্রা  অনেক নিচে নেমে এসেছে।
তিনি আরো বলেন আবাদের একাংশে মাঘ মাসের প্রচণ্ড শীতে যখন তাপমাত্রা ১৮° তে নেমে আসে তখন যে সব বড় ফসলের ধান গাছের পেটে থোড়  ছিল ঠান্ডায় সেগুলোর ধারন ক্ষমতা নষ্ট হয়ে গেছে। এবছর কৃষক বন্যা আতঙ্কে বীজ রোপনের  সময় হওয়ার আগেই তড়িঘড়ি করে ক্ষেতে ধান বীজ রোপন করায় ধান গাছগুলো প্রচন্ড ঠান্ডার সময় থোড় হওয়ায় এ সমস্যা দেখা দিয়েছে। তবে আগে তা বুঝা যায়নি এখন ফসল পাকার সময় ধরা পড়েছে অধিকাংশ ধানে চাল নেই।

No comments:

Post a Comment

Home