লক্ষীপুরের রামগঞ্জে নিরুত্তাপ উপজেলা নির্বাচন - খবরের অন্তরালে

জাতীয়

সর্বশেষ সংবাদ

Monday, 11 March 2019

লক্ষীপুরের রামগঞ্জে নিরুত্তাপ উপজেলা নির্বাচন

লক্ষীপুরের রামগঞ্জে আগামী ২৪ মার্চ উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনী প্রচারণায় নেই কোন উত্তাপ! এবার রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন দুইজন। ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনজন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে একজন।
চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা

নির্বাচনী প্রচারণায় প্রার্থী কম হওয়ায় প্রচারণার তেমন লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। অনুসন্ধানে জানা যায় চেয়ারম্যান পদে নমিনেশন পেপার দাখিল করেছিলেন ৩ জন প্রার্থী, তাদের মধ্যে একজন বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আ ক ম রুহুল আমিন স্বতন্ত্র, জনাব মনির হোসেন চৌধুরী আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী। অন্যজন এন পি পি থেকে প্রার্থী হয়েছিলেন।
বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জনাব আ ক ম রুহুল আমিন শেষ মুহূর্তে এসে  মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে তিনি তার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। তিনি যখন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন তখন নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই এবং প্রচার প্রচারণা জমজমাট থাকবে সবাই আশা করেছিলেন। কারণ তারপক্ষে তখন রামগঞ্জের বেশিরভাগ আওয়ামী লীগ এবং তার অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা সোচ্চার ছিলেন।
সুরাইয়া আক্তার শিউলী ছবি: ফেসবুক

কিন্তু হঠাৎ কোন অজানা কারণে তিনি তার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেছেন তা কেউ বলতে পারছেন না।
অন্যদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি বর্তমান স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক সোহেল রানা ও মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। সোহেল রানা  ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ায় মোটামুটি হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস পাওয়া গিয়েছিল।
কিন্তু জনাব সোহেল রানা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিনে তিনি ও তার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেন। এবং ফেসবুকের এক পোষ্টে তিনি জানিয়েছেন উক্ত উপজেলার মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব ডঃ আনোয়ার খান সাহেবের নির্দেশে তিনি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। এবং বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান জনাব দেলোয়ার হোসেন দেওয়ান বাচ্চুকে তিনি সমর্থন দিয়েছেন।
বাকি ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন দেলোয়ার হোসেন দেওয়ান বাচ্চু, রাকিবুল হাসান মাসুদ, আকবর হোসেন সুমন।
এই দুইজন চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করার কারণে উপজেলায় হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হওয়ার মত আর কোন প্রার্থী না থাকায় নির্বাচনের আমেজে ভাটা পড়েছে। অন্যদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুরাইয়া আক্তার শিউলী।
আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জনাব মনির হোসেন চৌধুরী বলা চলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। কিন্তু এন পি পির প্রার্থী তার প্রার্থিতা প্রত্যাহার না করায় তাকে নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। আর তিনি যে এবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন তা প্রায় নিশ্চিত। কারণ এন পি পির প্রার্থী কোন জনসমর্থন এবং তাদের দলীয় কোন কর্মকান্ড উক্ত উপজেলায় নেই বললেই চলে।
এখন যে টুকু প্রচারণা লক্ষ্য করা যায় তা হচ্ছে ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থীদের প্রচারণা ও মাইকিং তাও অনেক ঢিলেঢালা ভাবে। উক্ত এলাকার সাধারণ মানুষের মুখে নির্বাচন নিয়ে কোন উৎসব আমেজ লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।
ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান জনাব দেলোয়ার হোসেন দেওয়ান বাচ্চু চশমা মার্কা নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা রাকিবুল হাসান মাসুদ তালা মার্কা নিয়ে এবং আকবর হোসেন সুমন উড়োজাহাজ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে আছেন।

No comments:

Post a Comment

Home